মোবাইল দিয়ে টাকা আয় বিকাশে পেমেন্ট

আপনি  এই করোনাকালীন সময়ে  অনলাইনে আয় করার নিশ্চিত উপায় খুজছেন। আবার কেউ কেউ অনলাইন হতে সহজে আয় করে আয়ের টাকা বিকাশে পেমেন্ট পেতে চাইছেন। অনলাইন হতে আয় করার নিশ্চিত কিছু উপায় রয়েছে। অনলাইন হতে আয় করার জন্য শুধুমাত্র আপনার মেধা, শ্রম ও সময়ের প্রয়োজন। আপনি এই তিনটি জিনিস সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে ঘরে বসে মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইন হতে সহজে টাকা আয় করতে পারবেন। আপনি হয়ত বিষয়টি বিশ্বাস করতে চাইছেন না! কোন সমস্যা নেই। আমি আপনাকে উদাহরনের মাধ্যমে দেখিয়ে দেব কিভাবে আপনি ঘরে বসে মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইন হতে আয় করবেন?
 
আপনি একজন ছাত্র, গৃহিনী কিংবা চাকরিজীবী যাই হয়ে থাকেন না কেন, আপনার লেখা-পড়া বা কাজের ফাঁকে কিংবা চাকরির পাশাপাশি অবসর সময়ে ২/৩ ঘন্টা ব্যয় করে মাসে মোটামুটি ভালোমানের স্মার্ট এমাউন্ট অনলাইন হতে আয় করতে সক্ষম হবেন। এ ক্ষেত্রে আপনার চাকরি কিংবা লেখা পড়ায় কোন ধরনের ব্যাঘাত ঘটবে না। আপনার মূল প্রফেশন ঠিক রেখেও সামান্য অল্প সময় ব্যয় করে অনলাইন হতে বাড়তি কিছু টাকা আয় করে নিতে পারবেন।
 
আপনি একটি বিষয় ঠান্ডা মস্তিস্কে ভেবে দেখুন, আরো অন্য দশজন স্কুল কিংবা কলেজ পড়ুয়া ছাত্রদের মত আপনিও আপনার মূলবান সময়টুকু ফেইসবুক, টুইটার ও ইউটিউবে ফানি ভিডিও দেখা সহ বিভিন্ন রকম সামাজিক যোগাযোগের সাইটে ব্যয় করছেন। কখনো কখনো আমার নিজের প্রতিও খুব দুঃখ হয় কেন আমি বিগত বৎসরগুলোতে এ সকল সাইটে অযথা সময় ব্যয় করলাম। আমি নিজে প্রায় দুই বৎসর ফেইসবুক, টুইটার এবং বিভিন্ন অনলাইন গেম খেলে সময় পার করেছি। এখন আমি ভাবি কেন আমি এ সময়টুকো ঐ সমস্ত সামাজিক যোগাযোগের সাইটে ব্যয় না করে আমার বিজনেস২৪ এ  কাটালাম না।
এ রকম আমার আপনার অনেক বন্ধু বান্ধব আছে যারা ঠিক একইভাবে বিভিন্ন সামজিক যোগাযোগের সাইটে চ্যাট করে প্রতিদিন ঘন্টার পর ঘন্টা সময় পার করে দিচ্ছে। আপনি যদি হিসাব করে দেখেন, আপনি প্রতিদিন গড়ে কতটুকু সময় ইন্টারনেট ব্যবহার করে পার করছেন, তাহলে বেশীরভাগ লোকই বলবে ২-৩ ঘন্টা। তাহলে আপনি কি ভাবছেন এ সংখ্যা বছরে কততে গিয়ে দাড়াচ্ছে। বছরে অন্তত ১০০০-১২০০ ঘন্টা পার করছেন ইন্টারনেটে বিভিন্ন সমাজিক যোগাযোগ এর সাইটে চ্যাট করে। কিন্তু একবারও কি আপনি নিজের কাছে প্রশ্ন করেছেন যে, আপনার এ মূল্যবান সময়গুলো ব্যয় করে আপনি কি পেয়েছেন? আমিত নির্ধিদ্বায় বলতে পারি এর শুরু থেকে শেষ অব্দি শুধু শূন্য আর শূন্য।
 
আপনার মূ্ল্যবান সময়ের সামান্য সময় ব্যয় করে যদি কিছু টাকা পয়সা ইনকাম করে নিজের প্রয়োজন মিটাতে পারেন, তাহলে অন্যের কাছ থেকে ধার কর্জ করে চলার চেয়ে খারাপ কি? ইন্টারনেট জগৎটা Facebook, Social Media and Gaming এর মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। আপনার সামান্য ইচ্ছা শক্তির বলে আপনি ইন্টারনেট হতে কিছু টাকা আয় করতে পারেন। এই জন্য আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো কিভাবে ছাত্র-ছাত্রী, গৃহিনী এবং কিশোর বয়সি আধুনিক জেনারেশনরা ইন্টারনেট হতে অল্প কিছু টাকা উপার্জন করে নিজের ব্যক্তিগত প্রয়োজন মিটাতে পারেন।
কেন ছাত্রদের টাকা প্রয়োজন?
স্কুল কিংবা কলেজ সকল স্তরের ছাত্র-ছাত্রীদের কিছু Extra Pocket Money এর প্রয়োজন হয়। এই অল্প টাকা দিয়েই সে তার নিত্য প্রয়োজনীয় ছোট খাটো সখ এবং প্রয়োজন মিটিয়ে নিতে পারে। তাছাড়াও স্বাভাবিকভাবে এখনকার জেনারেশনের ছাত্রদের Smartphone, Gaming consoles, Cool cloths ইত্যাদি লাগেই। এ গুলো তাদের চলার পথকে আর Smart এবং সুগম করে। এই ছোট খাটো ব্যাপারগুলো অনেক সময় আপনার ফ্যামেলির কাছ থেকে চেয়ে নিতে পারবেন না। এই জন্য আপনি যদি অল্প সময় ব্যয় করে অনলাইন হতে কিছু টাকা আয় করে নিজের প্রয়োজন নিজেই মিটাতে পারেন, তাহলে নিজেকে যেমন আত্ম নির্ভরশীল মনে হবে তেমনি প্রয়োজন গুলোও মিটে যাবে। তাছাড়া অনেক গৃহিনী আছেন যাদের বাসায় বসে থাকা ছাড়া কোন কাজই থাকে না। তারা বেশীরভাগ সময় ব্যয় করে ফেইসবুকে বন্ধুদের সাথে চ্যাট করে। আপনি অযথা এই সময় ব্যয় না করে যদি নিজের কিছু প্রয়োজন মিঠাতে পারেন বা অল্প আয় করতে পারেন তাহলে দুষের কি? নিচে আমি অনলাইন হতে আয় করা সহজ কৌশল দেখাবো, যেখান থেকে আপনিও ইচ্ছা করলে কিছু পয়সা উপার্জন করে নিতে পারবেন।
মোবাইলে অনলাইনে আয়ঃ
আপনি মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয় করতে পারবেন কি না, সে বিষয়টি আমি শুরুতে ক্লিয়ার করে নিচ্ছি। কারণ অধিকাংশ লোকের কাছে কম্পিউটার বা ল্যাপটপ না থাকার কারনে অনলাইন কাজ করতে চায় না। তারা মনেকরে কম্পিউটার ছাড়া মোবাইল দিয়ে অনলাইন হতে আয় করার সম্ভব নয়। কিন্তু আপনি হয়ত জানেন না যে, কম্পিউটার ছাড়াও শুধুমাত্র মোবাইল দিয়ে বিভিন্ন উপায়ে ঘরে বসে অনলাইনে সহজে আয় করা যায়। আপনার নিকট যদি একটি এন্ড্রয়েড মোবাইল থাকে তাহলে আপনি সেই স্মার্টফোন দিয়ে অনলাইন হতে মাসে কিছু টাকা আয় করে নিতে পারবেন।
অনলাইনে আয় বিকাশে পেমেন্টঃ
অনলাইন কাজ শুরু করার পূর্বে অনেকের মনে আরেকটি প্রশ্ন জাগে যে, আমি অনলাইন হতে টাকা আয় করার পর সেই টাকা কিভাবে হাতে পাব? অনলাইন হতে আয়ের টাকা কিভাবে হাতে পাবেন সেই বিষয় নিয়ে আপনাকে চিন্ত করতে হবে না। অনলাইনের যে কোন প্লাটফর্ম হতে আপনি টাকা আয় করুন না কেন সেই টাকা আপনার হাতে পৌছতে কোন ধরনের সমস্যা হবে না। বর্তমানে প্রত্যেকটি অনলাইন প্লাটফর্ম তাদের গ্রাহকের উপার্জিত টাকা বিশ্বস্ততার সহিত হাতে পৌছে দেয়। এ ক্ষেত্রে আপনার আয়ের টাকা কেবলমাত্র বিকাশের মাধ্যমে পেতে হবে এমনটা চিন্তা করা উচিত নয়। অনলাইনে সকল বড় প্লাটফর্মগুলে অধিকাংশ ক্ষেত্রে ব্যাংকের মাধ্যমে টাকা হাতে পৌছে দেয়। সেই জন্য অনলাইন হতে আয়ের টাকা খুব সহজে আপনার যেকোন ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে নিতে পারবেন।
আমি আজ অনলাইনে আয়ের যে পদ্ধতিটি শেয়ার করব সেটা হতে আয়ের টাকা আপনি বিকাশ পেমেন্টের মাধ্যমে নিতে পারবেন।
অনলাইনে আয় করার নিশ্চিত উপায়ঃ
অনলাইনে আমার অনেক পরিচিত লোক রয়েছে যারা অনলাইন হতে প্রতি মাসে ভালোমানের টাকা উপার্জন করছে। আবার এমনো কিছু পরিচিত ব্যক্তি আছে যারা অনলাই হতে আয় করে তাদের পরিবারের ভরণ পোষণ সহ বিলাসিতার জীবন যাপন করছে। আমি নিজেও ২০১৮ সাল হতে অদ্যাবধি পড়াশোনার পাশাপাশি প্রতি মাসে কিছু টাকা আয় করে যাচ্ছি। আশাকরি আপনার সকলের আন্তরিকতা ও ভালবাসা পেলে ভবিষ্যতে আয়ের পরিমানটা আরো বৃদ্ধি করতে পারব।
 
এখন আমি আপনাদের সাথে অনলাইনে আয় করার  নিশ্চিত উপায় শেয়ার করব। আশাকরি আপনি ধৈর্য্যধারণ করে ৫/৬ মাস কাজ করলে আপনিও মাসে মাসে অনলাইন হতে কিছু টাকা আয় করতে সক্ষম হবেন। অনলাইনে কাজ শুরুর দিকে আপনার কাছে বিষয়টি কঠিন মনে হবে। কিন্তু ধিরে ধিরে আপনার কাছে সহজে হয়ে উঠবে। আপনি কথাগুলো মনে রাখবেন, একদিনে কেউ হাঁটতে শিখেনি। যে হাঁটে সে যায়, যে খুঁজে সে পায়।  কেউ একদিনে বড় হয়নি, বড় হওয়ার জন্য সময় দিতে হয় এবং ধৈর্য্য ধরে কাজ চালিয়ে যেতে হয়।

আমার আজকের আলোচনায় থাকছে ঘরে বসে অনলাইনে আয় করার  সহজ উপায় এবং প্রয়োজনীয় পরামর্শ। এখান থেকেই শুরু করে হয়ত আপনি মাসে ২০-৩০ হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আসুন দেখে নেওয়া যাক, এই আর্টিকেলে আমি যেসব বিষয়ে আলোচনা করব-

  • রেফারেলস মার্কেটিং নিয়ে প্রাথমিক ধারণা
  • AmarBusiness24 রেফারেলস প্রোগ্রামের পরিচিতি এবং সুবিধাসমূহ
  • ৩টি সহজ ধাপে AmarBusiness24 রেফারেলস প্রোগ্রাম থেকে আয় করার বিস্তারিত
  • কিভাবে আগাবেন – রেফারেলস মার্কেটিং এর গাইডলাইন ও টিপস
  • রেফারেলস প্রোগ্রাম নিয়ে কিছু কমন জিজ্ঞাসা ও সেগুলোর উত্তর

Referrals Marketing আসলে কী?

কোনো প্রোডাক্ট/সার্ভিস যদি আপনি আপনার পরিচিতদের কাছে প্রোমোট করেন, আর তারা আপনার কথা শুনে যদি সেই প্রোডাক্ট/সার্ভিস ক্রয় করে; তাহলে আপনি সেই প্রোডাক্ট/সার্ভিসের ক্রয়মূল্যের একটা নির্ধারিত অংশ কমিশন পাবেন। এটিই সহজ ভাষায় রেফারেলস মার্কেটিং! যত বেশি মানুষ আপনার কথা শুনে সেই প্রোডাক্ট/সার্ভিস ক্রয় করবে, আপনি তত বেশি কমিশন লাভ করবেন!

রেফারেলস মার্কেটিং এ তিনটি পক্ষ কাজ করে-

  • মার্চেন্ট –মার্চেন্ট মূলত পণ্য/সেবা তৈরি ও বিক্রি করে থাকে
  • কাস্টমার –তারা মার্চেন্টের সেই পণ্য/সেবা ক্রয় করে থাকে
  • রেফারেলস – তারা মার্চেন্টের তৈরিকৃত পণ্য/সেবা কাস্টমারের কাছে প্রোমোট করে এবং কাস্টমার সেই পণ্য/সেবা কিনলে রেফারেলসরা মার্চেন্টদের থেকে কিছু কমিশন লাভ করে

AmarBusiness24 এ আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন পণ্য বা সেবা সমূহ  সেল করি। আমাদের পাশাপাশি আমাদের সদস্যরা পণ্য বা সেবা সমূহ সেল  করে থাকেন এবং সেগুলো পরিচালনার দায়িত্বে থাকি আমরা Team AmarBusiness24. কাজেই টীম-AmarBusiness24 এখানে মার্চেন্ট, আর পণ্য বা সেবা সমূহ  ক্রয় করে যেসব সদস্যরা তারা কাস্টোমার। আর আমাদের রেফারেলসরা এই পণ্য বা সেবা সমূহ মানুষের কাছে পৌঁছে দেন যাতে বেশি বেশি মানুষ আমাদের পণ্য বা সেবা সম্পর্কে জানতে পারেন। আর রেফারেলসদের প্রোমোট করা পণ্য বা সেবা সমূহ  যখন কেউ ক্রয় করেন, তখন প্রতিটি পণ্য বা সেবা বিক্রয়মূল্য থেকে ৫-২০% পর্যন্ত কমিশন আমরা রেফারেলসদের দিয়ে থাকি! অর্থাৎ একজন কাস্টমার কোনো রেফারেলসের মাধ্যমে ১০০০ টাকার একটি পণ্য বা সেবা কিনলে সেই রেফারেলস পাবেন ৫০-২০০ টাকা! আর রেফারেলসকৃত লিংক ভিজিটর থেকেও পাবে ইনকাম পণ্য বা সেবা ক্রয় করুক বা না করুক।

 

এবার জানাবো AmarBusiness24র রেফারেলস মার্কেটিং প্রোগ্রাম কেনো এতো স্পেশাল..!

  • ২০% রেফারেলস কমিশনঃবাংলাদেশে সবচেয়ে পপুলার রেফারেলস প্রোগ্রামের অন্যতম হচ্ছে অ্যামাজনের রেফারেলস প্রোগ্রাম। অ্যামাজনের প্রোগ্রামে রেফারেলসরা ৪% থেকে শুরু করে ১০% পর্যন্ত কমিশন পায়। দেশি বিভিন্ন ই-কমার্স ব্যবসায়ীরাও প্রতিটি প্রোডাক্টের ৫-৮% কমিশন দিয়ে থাকে রেফারেলসদের। সেখানে AmarBusiness24তে রেফারেলসরা পাচ্ছেন ৫-২০% কমিশন!
  • ৩০ দিনের কুকিপলিসিঃবুঝিয়ে বলছি- কোনো ভিজিটর আপনার দেয়া রেফারেল লিঙ্কে ক্লিক করে AmarBusiness24তে প্রবেশ করলে আমরা তার ব্রাউজারে একটি Cookie সেভ করে রাখি ৩০ দিনের জন্য। ৩০ দিনের মধ্যে সে কোনো পণ্য বা সেবা  কিনলে আমরা বুঝবো সেটি আপনার রেফারেন্সেই কেনা হয়েছে। অর্থাৎ আপনার লিঙ্কে ক্লিক করে AmarBusiness24তে আসার ৩০ দিন পরেও যদি কেউ কোনো পণ্য বা সেবা কিনে, তাহলে আপনি কমিশন পাবেন। যেখানে অ্যামাজনের ক্ষেত্রে এই সময়কাল মাত্র ১ দিন (২৪ ঘণ্টা!)।
  • সাপ্তাহিক কমিশনঃঅর্থাৎ প্রতি মাসে ৪ বার আমরা কমিশন প্রদান করে থাকি!
  • সবচেয়ে বড় কথা– কোয়ালিটি অনুযায়ী আমাদের পণ্য বা সেবা সমূহ  বাংলাদেশের সবচেয়ে সেরা (এটা তো সবাই বলে :p )! আমাদের নিজস্ব পণ্য নেই কিন্তু সেবা নিজস্ব তবে আমরা প্রচন্ড কোয়ালিটি মেইনটেইন করেই পণ্য বা সেবা সমূহ সেল করি এবং করছি!

এছাড়া অন্যান্য আরও অনেক সুবিধা রয়েছে, সেগুলো দেখতে এখানে ক্লিক করুন!

তো আসলে কিভাবে এটি কাজ করে? কিভাবে বুঝবো কোন রেফারেলসের রেফারেন্সে Sale হলো? রেফারেলস হিসেবে আমার করণীয় কি আসলে ??

ধাপ  –  আমাদের রেফারেলস প্রোগ্রামে রেফারেলস হিসেবে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। করার পর আপনার একটি রেফারেন্স নম্বর থাকবে এবং সেই নম্বর দিয়ে বিভিন্ন রকম রেফারেল লিঙ্ক তৈরি করে দেয়া হবে। উদাহরন- https://amarbusiness24.com/Referrals_id=3 এখানে রেফারেন্স নম্বর হচ্ছে ৩। কাজেই কেউ এই লিঙ্কে ক্লিক করে আমাদের ওয়েবসাইটে গেলে আমরা বুঝে যাবো ৩ নম্বর রেফারেলস মার্কেটারের রেফারেন্সেই ভিজিটর ওয়েবসাইট ভিজিট করছেন। এই রেফারেল লিঙ্ক তথা CREATIVES গুলো টেক্সট, লিঙ্ক, ইমেজ ইত্যাদি বিভিন্ন ফরম্যাটের হতে পারে।

রেফারেলস হিসেবে রেজিস্টার করতে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন

ধাপ  –  রেফারেল লিংক তো পাওয়া গেল; এবার তা মানুষের কাছে প্রচার করতে হবে। সাধারণত বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠিত রেফারেলস মার্কেটারদের নিজস্ব অডিয়েন্স/ফ্যানবেইজ/ফলোয়ার থাকে। কোনো কোনো মার্কেটার হয়ত ব্লগিং করেন, কেউ হয়ত ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও পাবলিশ করেন, কেউ কেউ ফেসবুক বা অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখালিখি করেন। প্রতিটি রেফারেলস মার্কেটারকেই কোনো না কোনো ভাবে এই অডিয়েন্স তৈরি করে নিতে হবে আস্তে আস্তে; বা মানুষের কাছে পৌঁছানোর কোনো না কোনো উপায় বের করতে হবে। এরপর সেই অডিয়েন্সের কাছে মার্চেন্টের প্রোডাক্ট (AmarBusiness24 এর পণ্য ও সেবা) প্রচার করতে হবে রেফারেল লিঙ্কের মাধ্যমে।

অলরেডি নিজের ফলোয়ার বা অডিয়েন্স না থাকলে যে রেফারেলস মার্কেটিং করা যাবে না- এমনটি ভাববেন না। কোনো মার্কেটারই এই অডিয়েন্স রাতারাতি তৈরি করে ফেলতে পারেন না। সময়, শ্রম ও পরিকল্পনার প্রয়োজন রয়েছে। কাজেই অডিয়েন্স না থাকলে, বা নিজের ব্লগ বানানোর সাধ্য না থাকলেও সোশ্যাল মিডিয়ায় বিভিন্ন গ্রুপে, পেইজে, টাইমলাইনে, ইউটিউব চ্যানেলে বা অন্য কারো ব্লগেও মার্কেটিং শুরু করতে পারেন।

ধাপ  – এবার ঘুমিয়ে পড়ুন! Passive Income বলতে যা বুঝায় আরকি- ঘুমের মধ্যেও ইনকাম করা! অডিয়েন্স তৈরি করা আর তাদের মাঝে AmarBusiness24 এর পণ্য ও সেবা সমূহ প্রোমোট করার পর আপনার প্রগ্রেস এবং ইনকাম পর্যবেক্ষণ করুন। AmarBusiness24র Referrals থেকে দেখা যাবে ঠিক কতজন মানুষ আপনার রেফারেন্সে ওয়েবসাইট ভিজিট করেছে, কতজন মানুষ কত টাকার পণ্য বা সেবা কিনেছে, তা থেকে কত টাকা আপনি কমিশন পেলেন!

আরও বেশি অডিয়েন্স বাড়ানোর দিকে মনযোগ দিন। আর তার জন্য আপনার চ্যানেল বা মিডিয়াগুলোয় আরও বেশি বেশি কনটেন্ট শেয়ার করুন এবং সেই কনটেন্টের মাঝেই AmarBusiness24এর পণ্য বা সেবা সমূহ প্রোমোট করুন। কনটেন্ট অনেক রকমের হতে পারে, নিচে এ নিয়ে কিছু আইডিয়া দেয়া হয়েছে।

রেফারেলস মার্কেটিং টিপস- কোথায় এবং কিভাবে প্রোমোট করবেন!

১। ফেসবুক বা অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ায় – একটি পেইজ খুলে ফেলতে পারেন। সেখানে নিয়মিতভাবে লিখালিখি করতে পারেন। পেইড এডভার্টাইজমেন্টও করতে পারেন সম্ভব হলে। নিজের টাইমলাইনেও লিখতে পারেন। বিভিন্ন পাবলিক গ্রুপেও লিখতে পারেন, প্রোমোট করতে পারেন। লিখতে পারেন বা ভিডিও আপলোড করতে পারেন, বা ছবি আপলোড করতে পারেন!

২। ইউটিউব – একটি চ্যানেল খুলে সেখানে নিয়মিত ভিডিও আপলোড করুন। একটা নির্দিষ্ট ইনডাস্ট্রিতে থেকে বিভিন্ন বিষয়ের উপর ভিডিও তৈরি করুন, এমন ভিডিও তৈরি করুন যাতে মানুষের উপকারে আসে। ভিডিওতে বা ভিডিওর ডেসক্রিপশনে AmarBusiness24র পণ্য বা সেবা  প্রোমোট করতে পারেন।

৩। পার্সোনাল ব্লগ/ওয়েবসাইট – সম্ভব হলে সোশ্যাল মিডিয়ার পাশাপাশি নিজের একটা ব্লগ বা ওয়েবসাইট তৈরি করে সেখানেও লিখালিখি করতে পারেন। বিভিন্ন বিষয়ের উপর আর্টিকেল পাবলিশ করুন এবং সেখানে আমার বিজনেস ২৪ এর পণ্য বা সেবা প্রোমোট করুন। দরকারি বিভিন্ন বিষয়ের উপর আর্টিকেল লিখুন, যেগুলো পড়ে মানুষের কাজে লাগে।

৪। ইমেইল মার্কেটিং – ব্লগ বা বিভিন্ন মাধ্যম থেকে মানুষের ইমেইল এড্রেস এবং সম্ভব হলে মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করুন। এরপর বিভিন্ন সময়ে তাদের কাছে আমার বিজনেস ২৪ এর পণ্য বা সেবা ইমেইল, এসএমএস এর মাধ্যমে প্রোমোট করুন। ইমেইল মার্কেটিং এর জন্য Mailchimp নামের এই অসাধারণ Free Tool টি ব্যবহার করতে পারেন।

কি ধরনের কনটেন্ট পাবলিশ করবেন?

খুব জোর দিয়ে বলে রাখি- অনেক অনেক ধরনের কনটেন্ট পাবলিশ করা যায়। গুগলে একটু ঘাটাঘাটি করে অনেক আইডিয়া পেয়ে যাবেন কনটেন্ট মার্কেটিং এর। এখানে জাস্ট কয়েকটা আইডিয়া উদাহরণ হিসেবে দেখাচ্ছি-

  • ছোট ছোট দরকারি বিষয়ের উপর How-to ধরনের টিউটোরিয়াল (ভিডিও বা আর্টিকেল) বানাতে পারেন
  • বিভিন্ন বিষয়ের Review লিখতে পারেন। আমাদের পণ্য বা সেবাগুলোর রিভিউ লিখতে পারেন
  • কোনো পণ্য বা সার্ভিস, যেমন আমাদের পণ্য বা সেবা সমূহের বা প্লাটফর্ম নিয়ে নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারেন
  • আমরা বিভিন্ন পণ্য বা সেবা  অফার করে থাকি। প্রতিটি পণ্য বা সেবার সাথে সম্পর্কিত বিষয়াবলি নিয়ে কনটেন্ট বানাতে পারেন। কোন পণ্য বা সেবা কেন প্রয়োজন,  কিভাবে লাভবান হবে, পণ্য বা সেবাগুলো কাদের জন্য- এসব নিয়ে কথাবার্তা বলতে পারেন।
  • অন্যান্য মার্কেটপ্লেসের সাথে আমাদের মার্কেটপ্লেসের সরাসরি তুলনা করে দেখাতে পারেন কেন আমরা ভাল
  • আমরা আমাদের মার্কেটিং এর জন্য যেসব কনটেন্ট শেয়ার করি, সেগুলো নিজেরাও পাবলিশ করতে পারেন
  • আমরা প্রায়শই বিভিন্ন ডিসকাউন্ট বা বান্ডেল অফার দিয়ে থাকি, সেগুলো প্রোমোট করতে পারেন । ইত্যাদি

আশা করি বুঝতে পারছেন- পূর্ব অভিজ্ঞতা, বড় বাজেট, খুব বেশি সময় ও শ্রম দেয়ার সুযোগ না থাকলেও ছোট পরিসরে আশেপাশের মানুষের কাছে আমাদের পণ্য বা সেবা সমূহ প্রোমোট করেও মাসে বেশ কিছু টাকা আয় করা সম্ভব। যদি ফুল-টাইম রেফারেলস মার্কেটার হওয়ার ইচ্ছা বা পরিকল্পনা নাও থাকে, তবুও সম্ভব বাড়তি কিছু উপার্জন করা! কারণ আমাদের AmarBusiness24 রেফারেলস প্রোগ্রামের পুরো প্রসেসটাই সহজ এবং ঝামেলামুক্ত। ব্যাংক একাউন্ট, পেপাল, মাস্টারকার্ড, পেওনিয়ার এর ঝামেলা নেই। অনেক বেশি ফ্যানবেইজ বা অডিয়েন্স থাকাও জরুরী না শুরুতেই। ব্লগ, ওয়েবসাইট না থাকলে, ইউটিউবে ভিডিও বানানোর মত সামর্থ্য না থাকলে কেবল একটা ফেইসবুক আইডি দিয়ে বা আশেপাশের মানুষের কাছে প্রোমোট করেও উপার্জন করা সম্ভব!

রেফারেলস মার্কেটিং নিয়ে কিছু কমন প্রশ্ন ও উত্তর

 রেফারেলস হতে কত খরচ হবে?

আমাদের রেফারেলস হওয়ার জন্য কোন টাকা লাগবে না; সম্পূর্ণ ফ্রি-তে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন রেফারেলস হিসেবে। এছাড়া এখানে কোন ন্যুনতম সেলস এর লিমিট নেই, যতটুক সেল করবেন ততটুকুর উপরই কমিশন পাবেন।

 আমি কত টাকা উপার্জনের আশা করতে পারি?

এটা সম্পূর্ণ আপনার উপর। আপনার উপার্জন নির্ভর করছে আপনার সুপারিশকৃত সেলস এর উপর। আমরা প্রতি সেল এর জন্য ৫-২০% পর্যন্ত কমিশন দিয়ে থাকি। যত বেশি লিংক ছড়াবেন , আর যত সেলস হবে, ততই আপনার উপার্জন বাড়বে।

 কত সময় দেয়া লাগবে এর পিছে?

এটাও সম্পূর্ণ আপনার দক্ষতা ও অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর করবে। যদি কোনো পূর্ব অভিজ্ঞতা না থাকে, তাহলে দিনে কমপক্ষে ১-২ ঘণ্টা সময় ব্যয় করে দেখতে পারেন। কেমন ফলাফল আসছে তার উপর ভিত্তি করে কম বা বেশি সময় দিতে পারেন।

 আমার ওয়েবসাইট বা ব্লগ কি আপনাদের রেফারেলস প্রোগ্রামের যোগ্য?

প্রায় সকম ওয়েবসাইট বা ব্লগ ই আমাদের রেফারেলস প্রোগ্রামের জন্য যোগ্য। তবে আপনার ব্লগ/পেইজ/ওয়েবসাইট/চ্যানেলে কোন ধরনের বিতর্কিত বা বেআইনি কন্টেন্ট থাকলে, আমরা মেম্বারশিপ বাতিল করে দিতে পারি।

 আমি আসলে কি শেয়ার করবো?

এটা সম্পূর্ণ আপনার উপর নির্ভরশীল। আপনি আমাদের যেকোন পণ্য বা সেবার লিংক শেয়ার করতে পারেন। কিংবা AmarBusiness24র হোমপেইজের লিঙ্ক শেয়ার করতে পারেন।

 পেমেন্ট এর নিয়মকানুন গুলো কিপেমেন্ট কীভাবে দেয়া হয়?

আমরা রেফারেলসদের প্রতি মাসে ৪ বার পেমেন্ট দেই। প্রতি মাসের ৭,১৪, ২১ এবং ২৮ তারিখ। আপনার উপার্জন ৫০০০ টাকা অতিক্রম করলেই আপনি পেমেন্ট নিতে পারবেন। পেমেন্ট মেথড হিসেবে রয়েছে বিকাশ এবং রকেট

 আমি AmarBusiness24 রেফারেলস মার্কেটিং প্রোগ্রামে কীভাবে যোগ দিবো?

নিচের লিংকে ক্লিক করে রেজিস্ট্রেশন পেইজে যান এবং রেজিস্ট্রেশন ফর্ম টি পূরণ করে আমাদের ইমেইলের জন্য অপেক্ষা করুন। আপনার এপ্লিকেশন যাচাই করে আমরা ২-৩ দিনের মধ্যে আপনাকে ইমেইলে জানিয়ে দিব।

কোনো প্রশ্ন থাকলেবা আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে ইমেইল করুন  info@amarbusiness24.com  এই ঠিকানায়

 

 

CLICK HERE TO REGISTER AS AN REFERRALS MARKETER

Leave A Comment

Cart
Your cart is currently empty.